তরমুজের জানা-অজানা!

img

গ্রীষ্মের ফল তরমুজ। প্রচন্ড গরমে তৃষ্ণা মেটাতে তরমুজ অতুলনীয়। তরমুজ সম্পর্কে আছে দারুন সব অজানা তথ্য, আসুন জেনে নিই তরমুজের জানা অজানা।

  • তরমুজ কেবল তৃষ্ণাই মেটায় না, তরমুজের উপাদানসমূহ এজমা, এথেরোস্ক্লেরোসিস, ডায়াবেটিস, কোলন ক্যান্সার এবং আর্থ্রাইটিসের মতন রোগের প্রদাহ উপশম করে।
  • পৃথীবিতে ১২০০ জাতের তরমুজ আছে। কেবলমাত্র ৯৬ টি দেশেই তরমুজ চাষ করা হয়।
  • কিছু তরমুজ আছে ভেতরটা গোলাপী রঙের হয়ে থাকে। এই জাতের তরমুজে লাইকোপিন নামক ক্যারোটিনয়েড এন্টি-অক্সিডেন্ট থাকে। লাইকোপিন মানুষের শরীরে থাকা ক্ষতিকারক ফ্রী-র‍্যাডিক্যালসমূহকে ধ্বংস করার মাধ্যমে শরীরের উপকার করে।
  • এটি একই সাথে ফল ও সবজি! কাঁচা তরমুজ কিছু কিছু দেশে শসা, কুমড়ার মতই সবজি হিসেবে রান্না করে খাওয়া হয়!
  • চায়না-জাপানে এক জনের বাসায় অন্যজন বেড়াতে গেলে অতিথীরা উপহার হিসেবে তরমুজ নিয়ে যান। এসব দেশে তরমুজ একটি জনপ্রিয় গিফট আইটেম!
  • তরমুজের সব অংশই খাওয়া যায়, এমনকি এর বীজ এবং চামড়াসহ! চায়নায় তরমুজের চামড়া ভূনা করে খাওয়া হয়। আর মধ্যপ্রাচ্যে তরমুজের বিচি কুমড়ার বিচির মতই ফ্রাই করে খাওয়া হয়!
  • জাপানে তরমুজ ক্ষেতে থাকাকালীন বক্সকে ছাঁচ হিসেবে ব্যবহার করে তরমুজের আকার চারকোনাকৃতি করা হয়। চারকোনাকার তরমুজ সেদেশে গিফট হিসেবে খুবই জনপ্রিয়।ইদানিং জাপানে হার্ট শেপের তরমুজও উৎপাদন করা হচ্ছে!
  • বিজ্ঞানীরা ইদানিং বলছেন যে তরমুজ একটি প্রাকৃতিক ভায়াগ্রা। অর্থাৎ তরমুজে থাকা এমাইনো এসিড সাইট্রুলিন পুরুষদের ইরেক্টাইল ডিসফাংশান (Erectile Dysfunction)রোগ সারাতে ভালো কাজ করে।
  • একটি তরমুজের প্রায় ৬% চিনি এবং ৯২% পানি থাকে।
  • পৃথিবীর সব চেয়ে বড় তরমুজ উৎপাদন করা হয়েছিল আমেরিকাতে যার ওজন ছিল ১২১.৯৩ কেজি। এটি ২০১৩ সালে বৃহত্তম তরমুজ হিসেবে গ্রীনিস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে স্থান পায়।
  • একটি তরমুজ সাধারণত গরমকালে ১৩০ দিন পর প্রাকৃতিকভাবে পাঁকে। তবে ৮৫ থেকে ১০০ দিনের ভিতরেই একটি তরমুজ পরিপক্ক হয়ে যায়।
  • মার্ক টোয়াইন তরমুজ খুব পছন্দ করতেন, তিনি তরমুজকে ‘দেবতার খাদ্য’ বলে আখ্যায়িত করেন।
  • ২০০৫ সালে Ming liang Tsai কেবল মাত্র তরমুজ নিয়ে ‘The wayward cloud’ নামক একটি সিনেমা তৈরি করেন।

Eprokash Feature

ফিচার